আফগানিস্তানে নারী নিষিদ্ধ

29

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানে টিভি নাটকে নারী নিষিদ্ধ।

আফগানিস্তানে টেলিভিশন নাটকে নারীদের উপস্থিতি আর চোখে পড়বে না। তালেবানের নতুন সরকার টেলিভিশন নাটকে নিষিদ্ধ করেছে নারীদের। খবর বিবিসির।

নতুন নিয়মে, নারী সাংবাদিকসহ উপস্থাপকদেরও পর্দায় হিজাব পরে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে। তবে কোন ধরণের হিজাব পরতে হবে তা উল্লেখ করা হয়নি।

সাংবাদিকরা বলছেন, তালেবান নতুন কিছু নিয়ম জারি করলেও তা অস্পষ্ট এবং সেগুলোের ব্যাখ্যা থাকা দরকার। ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর নারীদের অধিকার বাস্তবায়নে নানা পদক্ষেপের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তালেবান নেতারা। তবে সেগুলো এখন দৃশ্যমান হচ্ছে না। বরং একের পর এক নিয়ম জারি করা হচ্ছে।

আফগানিস্তানের টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে প্রচার করা হয়েছে তালেবান সরকারের নতুন নিয়ম। এতে আটটি নিয়মের কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে শরিয়া আইনের বিরুদ্ধে যায় এমন সিনেমা নিষিদ্ধ থাকবে। এছাড়া সিনেমার দৃশ্যে পুরুষের অনাবৃত শরীর দেখানো যাবে না।

কমেডি ও বিনোদনমূলক শোতে ধর্মকে অবজ্ঞা করা যাবে না কিংবা আফগানদের কাছে আক্রমণাত্মক বিবেচিত হয় এমন সবকিছু নিষিদ্ধ থাকবে। যেসব বিদেশি ফিল্ম বিদেশি মূল্যবোধ প্রচার করে সেগুলো সম্প্রচার করা যাবে না।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানে তালেবানের শাসনকালে নারীদের অধিকারের বিষয়গুলো ক্ষুন্ন হওয়ার বিস্তর অভিযোগ আছে আন্তর্জাতিক মহলে। এবারও তালেবানের নতুন সরকারে উচ্চ পর্যায়ে ঠাঁই হয়নি নারীদের। যদিও তালেবান নারী ও শিশুদের অধিকার রক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। তবে সেগুলোর বাস্তবায়ন না করে উল্টো পথে হাঁটছে তালেবান সরকার। এর ফল ভালো হবে না, বলছেন নারী অধিকারকর্মীরা।