আফগানিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় তালেবান নেতা নিহত

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত হয়েছেন বিশিষ্ট তালেবান ধর্মীয় গুরু শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি। আত্মঘাতী হামলায় ওই নেতার মৃত্যু হয়েছে বলে রয়টার্সকে জানিয়েছে তালেবান সূত্র। কারা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে, তা এখনো স্পষ্ট নয়।
বৃহস্পতিবার আফগানিস্তানের কাবুলে একটি সেমিনারিতে বিস্ফোরণ হয়। সেখানেই নিহত হন তালেবান নেতা তথা ধর্ম বিশেষজ্ঞ শেখ রহিমুল্লাহ হক্কানি।

তালেবান মুখপাত্র জানিয়েছেন, কারা এই হামলা চালিয়েছে, তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে দ্রুত অভিযুক্তদের খুঁজে বের করা হবে এবং কড়া শাস্তি দেওয়া হবে। তালেবানের অন্তত চারটি সূত্র হক্কানির নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে।
এর আগেও একাধিকবার হক্কানির উপর আক্রমণের চেষ্টা হয়েছে। এদিন এক ব্যক্তি প্লাস্টিকের পা নিয়ে ওই সেমিনারিতে ঢুকেছিলেন বলে জানা গেছে। তার একটি পা নেই। সেখানেই প্লাস্টিকের পা লাগানো। তার ভিতরেই বিস্ফোরক ভরে এনেছিলেন তিনি। সেমিনারিতে ঢুকে সোজা হক্কানির অফিসে চলে যান তিনি। সেখানেই বিস্ফোরণ ঘটান। ওই ব্যক্তির পরিচয় জানা যায়নি। কীভাবে সে হক্কানির অফিস পর্যন্ত পৌঁছে গেল, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ঠিক একবছর আগে ১৪-১৫ অগাস্ট পশ্চিমা দেশের থেকে তালেবানদের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর হয়। গত একবছর ধরে আফগানিস্তান শাসন করছে তালেবান। তাদের শাসন নিয়ে নানা বিতর্ক আছে। নারীর অধিকার, মানবাধিকার নিয়ে সোচ্চার একাধিক সংগঠন এবং পশ্চিমা দেশগুলি। তবে কোনো কোনো দেশের সঙ্গে সম্পর্কও তৈরি করেছে তালেবান। চলছে ব্যাক চ্যানেল আলোচনা। কিন্তু গত এক বছরে একাধিক হামলা এবং বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে আফগানিস্তানে। তালেবানের দাবি, ইসলামিক স্টেটের সন্ত্রাসীরা একাজ করছে।
এদিনের ঘটনাও ইসলামিক স্টেটের করা বলে অনেকের অনুমান। তবে ইসলামিক স্টেট এখনো পর্যন্ত হক্কানি হত্যার দায় স্বীকার করেনি।
খবর রয়টার্স