আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ

ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সুপরিচিত প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। ১৯৯৭ সালে কানাডার নাইরোবিতে প্রথম সাক্ষাতের পর আরও ৭১ বার বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় মুখোমুখি হয়েছে তারা। জয়ের পাল্লা ভারী বাংলাদেশের। প্রথম দিকে জিম্বাবুয়ে আধিপত্য দেখালেও এখন দাঁড়াতেই পারে না টাইগারদের সামনে।
দীর্ঘ সাত মাস পর ওয়ানডে ফরম্যাটে ফিরতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। আজ রবিবার (১ মার্চ) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামবে তারা। বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায় শুরু হবে এই ম্যাচ। সরাসরি দেখা যাবে গাজী টিভিতে।

ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে একটি টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। পাঁচ দিনের টেস্ট ম্যাচ দেড় দিন আগেই শেষ হয়ে গেছে। সাড়ে তিন দিনেই দাপটে জিম্বাবুয়েকে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। মুমিনুল হকের নেতৃত্বে প্রথমবারের মতো টেস্ট জয় মিলেছে। এবার মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে খেলতে নামার পালা। ম্যাচগুলো দিবারাত্রিতে হবে। প্রথম ও দ্বিতীয় ওয়ানডে দুপুর ১টায় এবং তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে দুপুর ২টায় শুরু হবে।
ওয়ানডেতে দ্বিপক্ষীয় সিরিজে সবশেষ ২০১৩-তে বাংলাদেশকে হারিয়েছিল জিম্বাবুয়ে। এরপর বাংলাদেশের মাটিতে তিনটি সিরিজে যথাক্রমে ৫-০, ৩-০ ও ৩-০তে হোয়াইটওয়াশ হয়। বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে শেষবার তিন ম্যাচের দ্বিপক্ষীয় সিরিজে মুখোমুখি হয়েছিল ২০১৮ সালে। ইমরুল কায়েসের ব্যাটিং নৈপুণ্যে প্রথমটিতে ২৮ রান ও পরের দুই ম্যাচে ৭ উইকেটে জেতে টাইগাররা।
সিলেটের মাটিতে অনুষ্ঠেয় এই ম্যাচের একাদশ নিয়ে কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে পারেন নির্বাচকরা। এ দিন ওয়ানডতে অভিষেক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তরুণ ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখের।
গত বছরের নভেম্বরে ভারতের বিপক্ষে টি-টুয়েন্টি সিরিজে নিজের সামর্থ্যের জানান দেন নাঈম। ঘরোয়া ক্রিকেটেও পরীক্ষিত পারফর্মার ২০ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। তাই প্রথম ওয়ানডেতে তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেনিংয়ে দেখা যেতে পারে তাকে।
এছাড়াও একাদশে অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন আরেক তরুণ আফিফ হোসেন ধ্রুবকে। সাব্বির রহমানের বদলি হিসেবে মাঠে নামবেন তিনি। অপরদিকে পিঠের ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফেরা পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে আবারও দেখা যেতে পারে ওয়ানডে একাদশে।
বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
তামিম ইকবাল, নাঈম শেখ, লিটন দাস, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), মুস্তাফিজুর রহমান।
জিম্বাবুয়ের সম্ভাব্য একাদশ
চামু চিবাবা (অধিনায়ক), তিমিসেন মারুমা, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেইলর (উইকেটরক্ষক), শেন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, তিনোতেন্ডা মুতম্বোজি, ডোনাল্ড তিরিপানো, এইন্সলে এনডলোভু, ক্রিস এমপফু, কার্ল মুম্বা।